February 21, 2024, 11:55 am

সংবাদ শিরোনামঃঃ
বাটামারা ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে দৃষ্টি নন্দন পরিবেশে হচ্ছে এস এস সি পরীক্ষা-২০২৪ লক্ষীপুর বহুমূখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নকলমুক্ত পরিবেশে চলছে এসএসসি পরীক্ষা-২০২৪ চরকালেখান নেছারিয়া কামিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে দৃষ্টি নন্দন পরিবেশে চলছে দাখিল পরীক্ষা চরকালেখান আইয়াল মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে দৃষ্টি নন্দন পরিবেশে চলছে এস এস সি পরীক্ষা স্মার্ট বাংলাদেশে গড়ার লক্ষ্যে কাজ করছে বোয়ালিয়া পুলিশ ফাঁড়ি ১৮ ফেব্রুয়ারি হযরত সৈয়দ আব্দুল বারী শাহ (রহঃ) মাজার শরীফের ৪৮তম বার্ষিক ওরশ মাহফিল মাদক সম্রাজ্ঞী ফতু ইয়াবাসহ পল্লবী পুলিশের হাতে আটক শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্বরনে আমাসুফের দোয়া মাহফিল আমাসুফ”এর কেন্দ্রীয় পরিচালক এম.আর সুজন মাহমুদ কে ফুলেল শুভেচ্ছা সারাদেশের ন্যায় ময়মনসিংহে বিশ্ব মানবাধিকার দিবস পালিত
মেলান্দহে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে অমানবিক নির্যাতন 

মেলান্দহে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে অমানবিক নির্যাতন 

জামালপুর প্রতিনিধি:

জামালপুরে মেলান্দহে যৌতুকের জন্য রুবিনা বেগম (২২) নামক এক গৃহবধূকে অমানবিক নির্যাতন করেছে পাষণ্ড স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন। বর্তমানে ওই গৃহবধূ মেলান্দহ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় মেলান্দহ থানায় অভিযোগ হয়েছে। গত ১১ আগস্ট শুক্রবার বিকালে উপজেলার আদ্রা থুরী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এলাকাবাসী ও অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে থুরী রুহুল আমিন মেয়ে রুবিনা আক্তার সাথে গাজীপুর জেলা শ্রীপুর মুলায়েত গ্রামের রফিকুল ইসলাম রফিকের পুত্র হিমেল সরকার আকাশ সাথে প্রায় ৬ বছর পূর্বে বিয়ে হয়। বিয়ে পর একটি কন্যা সন্তান জন্ম হয়।

বিয়েতে চাহিদামতো যৌতুকও দেওয়া হয়। বিদেশ যাবে এই অজুহাতে হিমেল সরকার আকাশ গত ৮-৯ মাস ধরে স্ত্রী রুবি আক্তারকে তার বাবার বাড়ি থেকে নতুন করে ৫ লাখ টাকা এনে দেওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকে।

মুলায়েত স্থানীয় লোকজন বলেন, হিমেল সরকার আকাশ নারী লোভী,নেশা ঘুর ও তার আরেক টি স্ত্রী আছে। সেই স্ত্রী গাজীপুর কোর্টে হিমেল এর নামে মামলা করেছেন।

এম সি বাজার কবির দোকানদার বলেন, কয়েক মাস আগে হিমেল সরকার আকাশ তার বাবা-মা-ভাই-বোনসহ রুবিনা আক্তারকে যৌতুকের জন্য অনেক নির্যাতিত করে ও মারধর করেন।সম্প্রতি হিমেল সরকার আকাশ অন্য এক মেয়ের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। ৫ লাখ টাকা না দিলে ওই মেয়েকে বিয়ে করবে বলে স্ত্রী রুবিনাকে জানিয়ে দেয়। হিমেল সরকার আকাশ ও তার বাবা রফিকুল ইসলাম রফিক’র মেয়ে আদরিতা সরকার মুন্নিসহ রুবির বাড়িতে রুবিনাকে নিতে আসে। পরে এক পর্যায় রুবিনার পরিবারের সাথে ও হিমেলের পরিবারের সাথে কথা-কাটাকাটি হয়।এ সময় হিমেল সরকার আকাশ ও তার পরিবারের লোকজন মিলে রুবিনাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। সংবাদ পেয়ে রুবি আক্তার স্বজনরা এসে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় রুবিনা আক্তার বাদী হয়ে তার স্বামী হিমেল সরকার আকাশসহ ৩ জনকে আসামি মেলান্দহ থানায় অভিযোগ করেছেন।গৃহবধূ রুবিনা বেগম বলেন, অভিযোগ তুলে নেওয়ার জন্য আসামিরা আমাকে হুমকি-ধমকিসহ নানা ভয়-ভীতি দেখাচ্ছে। মেলান্দহ থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ দেলোয়ার হোসেন বলেন-আমি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের আইকনে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2023 digitaljonobarta.com
Desing & Developed BY Gausul Azam IT